সোহেল মাহফুজ ৭ দিনের রিমান্ডে

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে গ্রেফতার গুলশানের হোলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার ‘পরিকল্পনাকারী’ সোহেল মাহফুজ ওরফে শাহাদতের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
আজ রোববার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পুলিশ পরিদর্শক হুমায়ূন কবির তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম এ এইচ এম তোয়াহা ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
শনিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে সোহেল ছাড়াও আরো তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে পুলিশ জানিয়েছিল সোহেল হোলি আর্টিজানে হামলার পরিকল্পনাকারী ও গ্রেনেড সরবরাহকারী ছিলেন।
মাহফুজসহ চারজনকে গ্রেফতারের বিষয়ে রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি খুরশীদ হোসেন শনিবার দুপুরে সাংবাদিকদের বলেন, উগ্রবাদী সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ জেএমবির শীর্ষ নেতা মাহফুজের রাজশাহী অঞ্চলে প্রায় ৩০০ অনুসারী রয়েছে। তাদের ধরতে রাজশাহী অঞ্চলে পুলিশের সাড়াশী অভিযানের জালে পড়েন মাহফুজ। শনিবার ভোররাত তিনটার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়নের পুষকিনি এলাকার একটি আমবাগান থেকে তিন সহযোগীসহ মাহফুজকে গ্রেফতার করা হয়। গোপন মিটিং করে স্থান পরিবর্তনের সময় পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।
সোহেল মাহফুজের বাড়ি কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানার সাদিপুর কাবলিপাড়া গ্রামে। তার বাবার নাম রেজাউল করিম। তার তিন সহযোগীরা হলেন- নব্য জেএমবির আইটি স্পেশালিস্ট শিবগঞ্জের আফজাল হোসেনের ছেলে হাফিজুর রহমান হাফিজ, শিবগঞ্জ উপজেলার পার্বতীপুরের চকমোহনপুর গ্রামের ইয়াছিন আলীর ছেলে অস্ত্র সরবরাহকারী মোস্তাফিজুর রহমান জামাল এবং একই উপজেলার বিশ্বনাথপুর কাটিয়াপাড়া গ্রামের এসলামের ছেলে জুয়েল।
Share on Google Plus

About বাংলা খবর

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment