বাংলাদেশ-শ্রীলংকার মধ্যে বাণিজ্য সম্ভাবনা খুঁজে বের করার আহবান প্রেসিডেন্টের

যৌথ উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার মধ্যে বাণিজ্য এবং বিনিয়োগের সম্ভাবনা খুঁজে বের করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ। শ্রীলংকার সফররত প্রেসিডেন্ট মৈত্রীপালা সিরিসেনা আজ সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে প্রেসিডেন্টর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি বলেন, বাংলাদেশ থেকে সিরামিকস, সবজি, প্লাস্টিক পণ্য, ওষুধ, ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য, ফুটওয়্যার, লোহা ও স্টিল রফতানির চমৎকার সম্ভাবনা রয়েছে। উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য সম্প্রসারণের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে।
শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট ও তার সফরসঙ্গীদের স্বাগত জানিয়ে প্রেসিডেন্ট বলেন, বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার মধ্যে দীর্ঘ ও ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে।
বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে ঐতিহ্যবাহী ঘনিষ্ট সম্পর্ক জোরদার করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। জাতিসংঘ, কমনওয়েলথ, সার্ক, বিমস্টেক এবং লোরাসহ বিভিন্ন আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সদস্য হিসেবে দু’দেশ বিভিন্ন ইস্যুতে অভিন্ন মতামত প্রকাশ করে আসছে বলে প্রেসিডেন্ট উল্লেখ করেন। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, ব্যাংক ও সেবা খাতে বিনিয়োগ করে শ্রীলংকা সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
তিনি বলেন, আইসিটি, পর্যটন, মৎস্য, কৃষি, স্বাস্থ্য, পরিবেশ, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুসহ অন্যান্য ক্ষেত্রেও দু’দেশ দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার সম্ভাবনা খুঁজে দেখতে পারে।
শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টের বাংলাদেশ সফরকে মাইলফলক হিসেবে উল্লেখ করে আবদুল হামিদ বলেন, এতে দু’দেশের মধ্যে বহুমুখী সম্পর্কের সূচনা হবে।
শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট বলেন, তার দেশ সবসময় বাংলাদেশকে পরীক্ষিত বন্ধু হিসেবে গণ্য করে। আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশের চমৎকার উন্নয়ন ও অগ্রগতি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
এর আগে সন্ধ্যা ৭টায় সিরিসেনা বঙ্গভবনে পৌঁছলে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ তাকে স্বাগত জানান। এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং সংশ্লিষ্ট সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।
পরে, রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ শ্রীলংকার প্রেসিডেন্টের সম্মানে বঙ্গভবনের দরবার হলে ভোজসভার আয়োজন করেন। এতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও পরিবেশিত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি এস কে সিংহাসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ভোজসভায় উপস্থিত ছিলেন।
Share on Google Plus

About বাংলা খবর

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment