রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়ক সংযোগ পুনঃস্থাপিত by পুলক চক্রবর্তী

রাঙ্গামাটিতে পাহাড় ধসের ঘটনায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের সাপছড়ি শালবন এলাকায় সড়কের সংযোগ পুনঃস্থাপন করা হয়েছে। সড়কটি যানবাহন চলাচলের উপযোগী করে তুলতে কাজ করে যাচ্ছে সেনাবাহিনী ও সড়ক বিভাগের কর্মীরা। এখন আর দিনক্ষণ নয়, ভারী বৃষ্টিপাত না হলে যে কোনো সময় রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়ক হালকা যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন ১৯ ইসিবির উপ-অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ শাহরিয়ার ইফতেকার।
সড়কের বিভিন্ন স্থানে ধসে পড়া পাহাড়ের মাটি সরানো হয়েছে বলে জানান রাঙ্গামাটি সড়ক বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবু মুছা।
এদিকে টানা বৃষ্টিতে সড়কের বিশাল অংশ জুড়ে পানি আর কাদায় একাকার হয়ে পড়েছে। অনেকে এখনো কর্দমাক্ত পথে পায়ে হেটে গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন। যাতায়াতের জন্য বিকল্প হিসেবে রাঙ্গামাটির সঙ্গে কাপ্তাই নৌপথে লঞ্চ চলাচল শুরু হলেও এখনো অনেকে পায়ে হেটে সাপছড়ির পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়ে চলাচল করছেন। আবার অনেকে কাঁধের উপর করে মালামাল বহন করতে দেখা গেছে।
এদিকে শহরের ১৯টি আশ্রয় কেন্দ্রের তত্ত্বাবধান সেনাবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ ও রেডক্রিসেন্টের নিয়ন্ত্রেণে আসার পর গত দু’দিন ধরে খাবার সরবরাহসহ আনুসঙ্গিক সবকিছুই যথানিয়মে পরিচালিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আশ্রিত লোকেরা। প্রত্যেক কেন্দ্রে জরুরী মেডিকেল টিম কাজ করায় প্রত্যেক কেন্দ্রের মানুষ পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন।
আাশ্রয় কেন্দ্রে দুই বেলা খাবার দেয়া হলেও রোজাদারদের জন্য সেহরির কোনো ব্যবস্থা নেই। অনেকে রাতের খাবার বাঁচিয়ে সেহেরি খেয়ে রোজা রাখছেন।
রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার লিটন পালিত জানান, বাসি খাবারের কারণে তাদের ফুড পয়জনিং হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
Share on Google Plus

About বাংলা খবর

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment