নির্বাচনে অংশ নিতে খালেদার প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

বিএনপিকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে সুস্থ ধারার রাজনীতিতে ফিরে আসারও আহ্বান জানান তিনি। বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সুইডেনের স্টকহোমের সিটি কনফারেন্স সেন্টারে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেয়া এক নাগরিক সংবর্ধনায় বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় তিনি   বলেন, আমরা চাই গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত থাকুক। আমরা চাই তারা (বিএনপি) পুনরায় নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার মতো ভুল না করুক। বরং আমরা চাই তারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে এবং কারা ক্ষমতায় আসবে তা জনগণ বিচার করবে। বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, খালেদা জিয়া দেশের কোনো উন্নয়নে স্বস্তিবোধ করেন না। তিনি উন্নয়ন নয়, দেশের ধ্বংস দেখতে চান। বাংলাদেশ খারাপ পরিস্থিতির দিকে যাচ্ছে- খালেদা জিয়ার এই মন্তব্যের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ খারাপ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে না বরং যারা এতিমের অর্থ আত্মসাৎ করেছে, যারা মামলার মুখোমুখি হতে ভয় পায় এবং দেড়শ’বার রিট দাখিল সত্ত্বেও উচ্চ আদালতে মামলায় হেরেছে তাদেরই দুর্দিন যাচ্ছে।
শেখ হাসিনা আরো বলেন, দেশের মানুষ যখন ভালো থাকেন বিএনপি নেতা তখন স্বস্তি অনুভব করেন না। তারা স্বস্তি অনুভব করেন যখন তারা  মানুষ হত্যা করেন, দেশের সম্পদ ধ্বংস করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন হাওয়া ভবন খুলে জনগণের অর্থ লুট  করেছে, অবাধে দুর্নীতি করেছে। খালেদা জিয়া শুধু লুট ও কমিশন নেয়া জানেন। তারা কেবল জানে কীভাবে সম্পদ ধ্বংস করতে হয়।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পঁচাত্তরের ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে জিয়াউর রহমানের সম্পৃক্ততার বিষয়টি পুনরুল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরো বলেন, বিএনপি নেতারা ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা এবং ১০ ট্রাক অস্ত্র চোরাচালানের সঙ্গে জড়িত। তারা আমার জীবন নাশের কয়েকবার চেষ্টা করেছে। দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি জনগণের সামনে বিএনপির সন্ত্রাসী কার্যক্রম তুলে ধরার জন্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, জনগণকে অবহিত করতে হবে যে, বিএনপি একটি জঙ্গি ও সন্ত্রাসী সংগঠন। তারা মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। জনগণের সামনে তাদের চরিত্রকে উন্মোচিত করতে হবে। সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদীরা দেশের কোথাও স্থান পাবে না-উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। এই ধর্ম কখনো নিরীহ মানুষ হত্যার সমর্থন দেয় না। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে আমরা ব্যাপক কার্যক্রম গ্রহণ করেছি। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে গত আট বছরে দেশের উন্নয়নের বিষয়টি তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, আওয়ামী লীগের নীতি হলো দেশকে নিজের পায়ে দাঁড় করানো, অন্যের কাছ থেকে ভিক্ষা গ্রহণ নয়। আমরা মর্যাদার সঙ্গে বাস করবো। অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বক্তব্য রাখেন।
Share on Google Plus

About বাংলা খবর

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment