পাহাড় ধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯

নিম্নচাপের প্রভাবে টানা বৃষ্টির পর চট্টগ্রাম, রাঙামাটি ও বান্দরবানের বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসে অন্তত ৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চট্টগ্রামে ১২ জন, রাঙামাটিতে সেনাসদস্যসহ ৩০ জন ও  বান্দরবানে ৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার ভোররাত থেকে সকাল পর্যন্ত এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।
টানা বর্ষণে পাহাড় ধসে রাঙামাটিতে বিভিন্ন স্থানে ৩০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। সদর, কাউখালী ও কাপ্তাই উপজেলায় এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভূমিধসের কারণে রাঙামাটি ও বান্দরবানে সড়ক চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। হতাহতদের রাঙামাটি সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।
আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, পাহাড় ধসের পর সড়ক যোগাযোগ পুনঃস্থাপন করতে গিয়ে অপর একটি পাহাড় ধসে বেশ কয়েকজন সেনা সদস্য আহত ও নিহত হয়েছেন। তবে হতাহতদের সংখ্যা প্রকাশ করেনি আইএসপিআর।
এদিকে বান্দরবানের বালাঘাটা এলাকায় তিনটি পাহাড় ধসে পড়েছে। বান্দরবান সদর থানার ওসি রফিক উল্লাহ জানান, সোমবার রাতে শহর এলাকার কয়েক জায়গায় পাহাড় ধসে অন্তত সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বেশ কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছেন। ঘটনার পর খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা উদ্ধারকাজে যোগ দিয়েছে।
বান্দরবান সদর হাসপাতালের চিকিৎসক মংকু চিং বলেন, পাহাড় ধসের ঘটনায় হাসপাতালে আসা ৭ জনকে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেছে। এছাড়া আরও ২৪ জনকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।
এদিকে, চট্টগ্রামে চন্দনাইশ ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ধোপাছড়ি ইউনিয়নে পাহাড় ধসে একটি শিশুসহ ১২ জন নিহত হয়েছেন। রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামাল হোসেন জানান, রাজনগর ও ইসলামপুরে পাহাড় ধসে অন্তত আটজন নিহত হয়েছে।
Share on Google Plus

About বাংলা খবর

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment