'ভারত বধে মূলশক্তি হবে বোলিং'

বাংলাদেশের বোলিংয়ের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবেন সাকিব আল হাসান। তার লড়াইটা হবে অশ্বিনের সঙ্গে। বাংলাদেশের প্রধান স্পিনার অবশ্য তা মানতে রাজি নন। দলের জন্য তিনি কতটা অবদান রাখতে পারেন, সেটাই তার একমাত্র ভাবনা। ব্যাটে-বলে সমান ভূমিকা রাখতে পারেন তিনি। যেমন রেখেছেন নিউজিল্যান্ডে। দিনশেষে যদিও তা বিফলে গেছে দলের হারে।
হায়দরাবাদে কী হবে? সাকিব বলেন, ‘এটা আমাদের সবার জন্য একটি চ্যালেঞ্জ। আপনি যদি ২৫০ রান করেন আর আপনার বোলাররা ভালো করে, তাহলে ২৫০ যথেষ্ট রান। আবার ৫০০ রান করেও যদি আপনার বোলারদের পারফরম্যান্স ভালো না হয়, তাহলে কোনো লাভ নেই। তাই যখন সবার সমান অবদান থাকবে শুধু তখনই দল ভালো করতে পারে। কোনো একটি নির্দিষ্ট বিভাগের ওপর নির্ভর করে ম্যাচ জেতা যায় না। নিউজিল্যান্ডে যেমন হয়েছে, একদিনে আমরা ভালো ব্যাটিং করেছি তো অন্যদিনে বোলিং। একসঙ্গে সব বিভাগে ভালো করতে পারিনি।’ একটা ইউনিট হিসেবে দলের ভালো পারফরম্যান্সের জন্য প্রয়োজন সমন্বিত প্রচেষ্টা। একথা উল্লেখ করে সাকিব বলেন, ‘প্রত্যেকের অবদান রাখার অবকাশ রয়েছে। দলে যে নতুন তারও। প্রত্যেকের দায়িত্ব এটা।’ ৯ ফেব্রুয়ারি হায়দরাবাদে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ-ভারত একমাত্র টেস্টে অশ্বিনের সঙ্গে তার লড়াই হবে বলে মনে করা হচ্ছে।
এ প্রসঙ্গে সাকিবের বক্তব্য, ‘গত দু-তিন বছর অশ্বিন ভারতের হয়ে সত্যি খুবই ভালো বোলিং করছে। বলের ওপর ওর নিয়ন্ত্রণ ওকে অন্যদের থেকে আলাদা করেছে। বল হাতে নিয়ে সে যা ইচ্ছা তাই করতে পারে। আপনি যদি তা করতে পারেন, তাহলে একজন বোলার হিসেবে আর কিছু করার প্রয়োজন হয় না। বলের ওপর ওর নিয়ন্ত্রণ এবং আত্মবিশ্বাস ওকে এ মুহূর্তে বিশ্বের একনম্বর বোলার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে।’ সাকিবের মতে, সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হবে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের বেঁধে রাখা। ‘ওরা স্পিন খুব ভালো খেলতে পারে। স্পিনের বিপক্ষে সবচেয়ে ভালো খেলে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। আমাদের জন্য তাই এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা যদি এখানে ভালো করতে পারি, তাহলে শ্রীলংকা সিরিজের জন্য আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়বে’, বলেছেন সাকিব। ক্রিকইনফো।
Share on Google Plus

About Sadia Afroza

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment