সাংবাদিক খুনে পৌরমেয়র মিরু বহিষ্কার

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সাংবাদিক আবদুল হাকিম শিমুলকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় পৌরমেয়র ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হালিমুল হক মিরু এবং কে. এম নাসির উদ্দিনকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
রোববার দুপুরে শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে তাদের বহিষ্কারের এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বৈঠক শেষে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাপুর) আসনের সংসদ সদস্য হাসিবুর রহমান স্বপন সাংবাদিকদের এ তথ্য দেন। তিনি বলেন, সকালে ১০টার দিকে এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে আমরা জরুরি বৈঠকে শুরু করি। সেখানে সর্বসম্মতিক্রমে  তাদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। হাসিবুর রহমান জানান, এখন এ সিদ্ধান্ত জেলা কমিটিতে পাঠানো হবে। কমিটি অনুমোদন দিলে তা কেন্দ্রে পাঠানো হবে। জরুরি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক এমপি চয়ন ইসলাম, আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ডা. ইউনুস আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যান আজাদ রহমান প্রমুখ।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দুপুরে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে শাহজাদপুর পৌরমেয়রের শটগানের গুলিতে দৈনিক সমকালের নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ৭ খুনের মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি সার্জেন্ট এনামুল কবিরকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার বেলা ১১টার দিকে মাগুরা শহরের ভায়নামোড় এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এনামুল কবির মাগুরার শালিখা উপজেলার কাতলি গ্রামের ইমারত হোসেন মোল্লার ছেলে। মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলাম জানান, ৭ খুনের ঘটনার পর থেকে এনামুল কবির পলাতক ছিলেন। তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা শালিখা থানায় আসার পর থেকে গ্রেফতারে সোর্স নিয়োগ করা হয়। অবশেষে রোববার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বেলা ১১টার দিকে শহরের ভায়নামোড় এলাকা থেকে এনামুল কবিরকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে মাগুরার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আর বিষয়টি নারায়ণগঞ্জের সংশ্লিষ্ট আদালত ও পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।শাহজাদপুর উপজেলা প্রতিনিধি আবদুল হাকিম শিমুল গুরুতর আহত হন। পরে তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার দুপুরে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়ার পথে তিনি মারা যান। তার মৃত্যু সংবাদ শুনে নানি রোকেয়া বেগম (৭০) ওই দিন সন্ধ্যায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।
Share on Google Plus

About Sadia Afroza

    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment